Bogalake-Keokaradong Tour & Trekking

Trekking | Price: | Hotel: 5 stars |

বগালেক ও কেওক্রাডং ভ্রমণ
সুমন্স ট্যুরিজম দিচ্ছে আপনাকে বগালেক ও কেওকাড়াডং ভ্রমনের ৪ রাত ৩ দিনের এডভেঞ্চার ট্যুর প্লান।

প্রথম রাতঃ বগালেক।
দ্বিতীয় রাতঃ কেওক্রাডং পাহাড়।

 ট্যুর প্লানঃ
 প্রথম রাত:
ঢাকা থেকে রাতের বাসে বান্দরবানের উদ্দেশ্যে যাত্রা ।
 প্রথম দিন: সকালে বান্দরবান শহরে পৌঁছে হোটেলে ফ্রেশ হয়ে নাশতা করে বান্দরবানের আরেক উপজেলা রুমার উদ্দেশ্যে যাত্রা এবং রুমায় পৌছে দুপরের খাবার খাওয়া। এর মাঝে আমরা পার্মিশনজনিত সকল কাজ শেষ করবো।  এরপর জিপে করে আমরা সরাসরি বগালেকে চলে যাবো। ইনশাল্লাহ বিকাল নাগাদ বগালেকে পৌছাবো।
 ২য় রাত: রাতে বার-বি-কিউ এবং বগালেকে আদিবাসী বাড়িতে রাত্রিযাপন।
 দ্বিতীয় দিন:
আয়েশ করে ঘুমিয়ে সকালের নাস্তা করে বেড়িয়ে পড়বো কেওকাড়াডং এর উদ্দেশ্যে, পথে চিংড়ি ঝর্না দেখে দার্জিলিং পাড়া পেরিয়ে আমরা চলে যাবো কেওকাড়াডং।
 ৩য় রাত:
আমরা কেওকাড়াডং এ ক্যাম্পফায়ার করবো এবং মধ্যরাত পর্যন্ত গানবাজনা করবো এবং কেওকাড়াডং এ রাত্রিযাপন করবো।

 তৃতীয় দিন:
সকালে ঘুম থেকে উঠে  কেওক্রাডং কে বিদায় জানিয়ে দার্জিলিং পাড়ায় এসে হালকা নাস্তা খেয়ে আবার হাঁটার পালা। দুপুরের মধ্যে বগালেকে পৌঁছে কিছুটা বিশ্রাম ও খাওয়া-দাওয়া। তারপর অপেক্ষমান জিপে চেপে রুমায় ফিরে আসতে হবে। রুমা থেকে বান্দরবানের উদ্দেশ্যে যাত্রা।
 চতুর্থ রাত:

বান্দরবানে এসে রাতের খাবার খেয়ে বাসে উঠে ঢাকার উদ্দেশ্যে যাত্রা। পবের দিন সকালে ইনশাল্লাহ ঢাকায় পৌছাবো।

কিছু জরুরী তথ্যঃ
>>> বগালেক ও কেওক্রাডং বান্দরবান শহর থেকে যথাক্রমে ৬০ ও ৭০ কিলোমিটার দূরে। দূর্গম এই অঞ্চলে যেতে হলে পথচলার কষ্ট সহ্য করার মতো মন-মানসিকতা আপনার থাকতেই হবে। বিশেষ করে রুমা থেকে বগালেক যাওয়ার পথটি কেথাও ইটের সলিং…কোথাও আবার এবড়ো থেবড়ো, যথেষ্ট উঠা-নামার পথ। তবে, এ পথ চলায় যে অ্যাডভেঞ্চার আছে, বাংলাদেশের আর কোথাও পাবেন না!
>>> বগালেক ও কেওক্রাডং এ যে সব কটেজ আছে, সেগুলো সাদামাটা টাইপের। এক রুমে ছয়-সাত জন করে থাকতে হবে।
>>> স্বামী-স্ত্রীর জন্য আলাদা রুমের ব্যবস্থা হবে না। তবে মহিলাদের জন্য আলাদা কটেজের ব্যবস্থা থাকবে।
>>> রুমা থেকে বগালেক ও কেওক্রাডং যাওয়ার পথে কয়েকটি সেনাক্যাম্পে রিপোর্ট করতে হয়। তাই কোনো ক্যাম্পে বিরক্তি প্রকাশ করবেন না। গাইড আপনাদের সার্বক্ষণিক সহযোগিতা করবেন।
>>> এই ট্যুরে যাওয়ার আগে কিছু হাঁটার অভ্যাস করে নিতে পারেন যদি কেওক্রাডং ট্রেকিং করতে চান। তবে বগালেক পর্যন্ত গাড়ি উঠবে।

সঙ্গে যা যা নিতে হবেঃ

  • ব্যকপ্যাক
  • জাতীয় পরিচয় পত্র
  • মোবাইল চার্জার, পাওয়ার ব্যাঙ্ক, ব্যাকআপ ব্যটারি, রবি/টেলিটক সিম, টর্চ ইত্যাদি।
  • সান গ্লাস, ক্যাপ, সানস্ক্রিন লোশন
  • মাস্ক (পথের ধুলা থেকে বাঁচার জন্য)
  • পানির বোতল, টুথপেস্ট, টুথব্রাশ
  • প্রয়োজনীয় কাপড় চোপড় ও শীতের পোশাক
  • ফাস্ট এইড, স্যালাইন, প্রয়োজনীয় ওষধপত্র
  • ট্রেকিং সেন্ডেল।
  • উল্লেখ্য, রুমা বাজারে ট্রেকিং সেন্ডেল পাওয়া যায়।

এই খরচে যা যা থাকবেঃ

  •  নন এসি বাসে ঢাকা থেকে বান্দরবান আসা যাওয়া খরচ।
  •  বান্দরবান থেকে রুমা বাজার আপ-ডাউন ভাড়া।
  •  রুমা থেকে বগালেক পর্যন্ত রিজার্ভ জিপে যাওয়া আসা খরচ।
  •  গাইড ফি ও তার থাকা খাওয়াসহ যাবতীয় খরচ।
  •  বগালেক ও কেওক্রাডং এ ২ রাত কটেজ ভাড়া।
  •  তাঁবু ভাড়া খরচ।
  •  বারবিকিউ ,ক্যাম্পফায়ার সহ প্রতিদিন তিনবেলা খাবার সহ যাবতীয় খরচ।

    দৃষ্টি আকর্ষণঃ
  • এটা পুরা দস্তুর অ্যাডভেঞ্চার ও ট্রেকিং ট্যুর।
  • প্রতিকুল ও পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে নিজেকে মানিয়ে নেবার মতো মানসিকতা যাদের নেই, তারা এ ভ্রমণে আসবেন না।
  • বগালেক ও কেওক্রাডং এর টয়লেটগুলো কমন। সুতরাং যাদের টয়লেট নিয়ে খুঁৎখুঁতে স্বভাব আছে, তাদের এমন ট্রিপে না আসাই উচিত।
    খরচ : জনপ্রতি ৬৫০০/- টাকা।( যাওয়া আসা থাকা খাওয়া গাইড, ট্রান্সপোর্ট সব খরচ সহ)
    জনপ্রতি ২০০০ টাকা অগ্রীম (অফেরতযোগ্য) দিয়ে বুকিং কনফার্ম করতে হবে এবং বাকি টাকা যাওয়ার ২ দিন আগে পরিশোধ করতে হবে।
    টাকা পাঠাবেন যেভাবেঃ
  • ব্যাংক এ্যাকাউন্টঃ
  • RezaulKarim
  • Account no: 1509202241575002
  • Brac Bank, Satmasjid road Branch, Dhaka.
  • অথবা,
  • বিকাশ করুন ঃ ০১৮৭৭০২৭২৭৭ (পার্সোনাল) এই নাম্বারে
  • ডাচ বাংলা(রকেট)ঃ ০১৮৭৭০২৭২৭৭৪ এই নাম্বারে।

    যোগাযোগঃ সুমন্স ট্যুরিজম , বাসা ১৫, রোড ০১, কাদেরাবাদ হাউজিং , মোহাম্মদপুর , ঢাকা ১২০৭ ।
    মোবাইলঃ +৮৮০১৮৭৭০২৭২৭৭ অথবা +৮৮০১৭১৭০৯০০৭৮
    যেকোন ট্যুরের জন্য ভিজিট করুন www.sumonstourism.com

Leave a Reply